রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০


আলিঙ্গন করলে কী হয়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত:১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:১২

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ফেব্রুয়ারির ১২ তারিখ হাগ ডে বা আলিঙ্গন দিবস হিসেবে পালন করা হয়। এটি আপনার কাছে নিছক ছেলেমানুষী মনে হতেই পারে, তবে সত্যিটা কী, জানেন? প্রিয় মানুষকে আলিঙ্গন করলে আপনি কখনো ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। বরং অনেক উপকার পাবেন। প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করলে আপনার জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকা অনেক বেশি সহজ হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক আলিঙ্গন করার উপকারিতাগুলো-

চাপ কমায়-

আলিঙ্গন আপনার চাপ কমিয়ে দিতে পারে। আপনি যখন কাউকে আলিঙ্গন করেন, তখন শরীর অক্সিটোসিন নিঃসরণ করে, যাকে প্রেমের হরমোনও বলা হয়। এই জাদুকরী হরমোন স্ট্রেস এবং উদ্বেগ কমাতে সাহায্য করে, আপনাকে আরও আরামদায়ক এবং সুখী করে। সুতরাং এরপর যখন মানসিক চাপ অনুভব করবেন, প্রিয়জনকে উষ্ণ আলিঙ্গনে আবদ্ধ করতে দ্বিধা করবেন না।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করে-

বিশ্বাস করুন বা না করুন, আলিঙ্গন আপনাকে সুস্থ রাখতে পারে। আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার ওপর ইতিবাচক প্রভাব এর চমৎকার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলোর মধ্যে একটি। আলিঙ্গনের সময় নিঃসৃত অক্সিটোসিন ইমিউন ফাংশনকে সমর্থন করে শরীরকে অসুস্থতা থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। অক্সিটোসিন অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য প্রদাহ হ্রাসে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে যে, এই হরমোন প্রাকৃতিক ঘাতক কোষসহ রোগ প্রতিরোধক কোষের কার্যকারিতা বাড়ায়। দেখলেন তো, কীভাবে একটি সাধারণ আলিঙ্গন আপনাকে ফিট এবং সুস্থ রাখতে অবদান রাখতে পারে?

হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখে-

আলিঙ্গন শুধুমাত্র মনের জন্যই ভালো নয়; এটি আপনার হার্টে জন্যও উপকারী! অনেক গবেষণা পরামর্শ দেয় যে, আলিঙ্গন রক্তচাপ এবং হৃদস্পন্দন হ্রাস করতে পারে। আলিঙ্গনের আরামদায়ক এবং শান্ত প্রভাব আরও ভালো কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যে অবদান রাখতে পারে।

মানসিক সুস্থতা বাড়ায়-

আলিঙ্গন শক্তিশালী মানসিক সংযোগ তৈরি করে। এটি শব্দ উচ্চারণ ছাড়াই ভালোবাসা, যত্ন এবং সমর্থন জানান দেয়। আলিঙ্গনের মাধ্যমে অন্যদের সঙ্গে সংযুক্ত বোধ করবেন। এটি আপনার সামগ্রিক মানসিক সুস্থতার উন্নতি করতে পারে। এটি সম্পর্ককে শক্তিশালী করার একটি সুন্দর উপায়।

ভালো ঘুমে সহায়ক-

আপনার যদি রাতে ভালো ঘুম না হয়ে তবে আলিঙ্গন ভালো সমাধান হতে পারে। অক্সিটোসিন নিঃসরণ শুধুমাত্র স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে না বরং শিথিলতাও বাড়ায়। এই প্রশান্তির অনুভূতি শান্তিপূর্ণ এবং আরামদায়ক রাতের ঘুমে সাহায্য করতে পারে। সুতরাং, ভালো ঘুমের জন্য আপনার ঘুমের রুটিনে একটি আলিঙ্গন যুক্ত করার কথা ভেবে দেখুন!

সম্পর্কিত বিষয়:

আপনার মতামত দিন:

(মন্তব্য পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।)
আরো পড়ুন

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

নামাজের সময়সূচি

ওয়াক্ত সময়সূচি
ফজর ৫:১০ ভোর
যোহর ১২:১২ দুপুর
আছর ৪:২১ বিকেল
মাগরিব ৫:৫৮ সন্ধ্যা
এশা ৭:১৪ রাত

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪